ড্যাফোডিল শিক্ষার্থীদের ইনস্টিটিউশনাল ই-মেইলের যত সুবিধা

ড্যাফোডিল শিক্ষার্থীদের ইনস্টিটিউশনাল ই-মেইলের যত সুবিধা

তথ্য প্রযুক্তির ক্রমবিকাশমান ধারার সাথে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে যুগোপযোগী করে তুলতে এবং প্রতিযোগীতা মূলক চাকরি বাজারে দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদেরকে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত করার পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত করার মাধ্যমে দেশকে দক্ষ মানবসম্পদ উপহার দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, দেশের উন্নয়নের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নিজেদের শিক্ষা কার্যক্রমেও প্রশংসনীয় উন্নয়ন ঘটিয়েছে ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়। 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অথবা ইনস্টিটিউট হতে ইস্যুকৃত ই–মেইলই হচ্ছে ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল বা .edu মেইল। ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইলে যে কত রকম সুবিধা রয়েছে, তা আমাদের দেশের বেশির ভাগ শিক্ষার্থীই হয়তোবা না–ও জানতে পারেন। এমনকি বাংলাদেশের অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে এখনো ইনস্টিটিউশনাল ইমেইল ব্যবহারের সুবিধাই নেই। একজন শিক্ষার্থীর জন্য ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল হতে পারে আশীর্বাদস্বরূপ। যেসব ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষকে গুনতে হয় বিপুল পরিমাণ অর্থ, সেখানে শুধু ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহারের ফলে একজন শিক্ষার্থী একই ধরনের সেবা পেতে পারেন অনেক কম খরচে অথবা বিনা খরচে।

ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সাথে সাথে ড্যাফোডিলের শিক্ষার্থীরা একটি এডু ইমেইল পেয়ে থাকে। ইনস্টিটিউশনাল ই-মেইল দিয়ে শিক্ষার্থীরা যে সকল সুবিধা পাবে তা তুলে ধরা হলো।

গিটহাবঃ

  • ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহারের সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো গিটহাব। গিটহাব স্টুডেন্ট ডেভেলপমেন্ট প্যাকে ১২টি সুবিধা শিক্ষার্থীরা উপভোগ করতে পারেন।
  • ১৫ ইউএস ডলার অ্যামাজন এডব্লিউএস কুপন।
  • ১২ মাসের জন্য ৫০ ইউএস ডলার ডিজিটাল ওস্যান কুপন।
  • বিটন্যামি তে এক বছরের ফ্রি সুবিধা, যার জন্য সাধারণত মাসিক ৪৯ ইউএস ডলার খরচ করতে হয়।
  • ক্লাউডফ্লাওয়ার এক্সেস।
  • ডিএনসিম্পলে দুই বছরের জন্য ফ্রি ডিএনএস প্ল্যান সুবিধা, যা সাধারণত মাসিক ৫ ইউএস ডলার খরচ করে পেতে হয়।
  • গিটহাবে আনলিমিটেড প্রাইভেট রিপোজিটরিজ। শিক্ষার্থীরা ফ্রিতে এই সুবিধা পেলেও সাধারণ মানুষকে এর জন্য মাসিক ৭ ইউএস ডলার গুনতে হয়।
  • হ্যাকহ্যান্ডসে ২৫ ইউএস ডলার ক্রেডিট, যা শিক্ষার্থীদের প্রোগ্রামিং শিখতে সাহায্য করে।
  • মাইক্রোসফট ক্লাউড,ভিজ্যুয়াল স্টুডিও কমিউনিটি এবং অন্যান্য ডেভেলপার টুলসের ফ্রি এক্সেস।
  • নেমচিপ.কমে ১ বছরের জন্য মাত্র বার্ষিক ১৮.৯৯ ইউএস ডলারের বিনিময়ে .me ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন এবং ১ বছরের এসএসএল সার্টিফিকেট, যার জন্য শিক্ষার্থীদের খরচ হয় বার্ষিক মাত্র ১০ ইউএস ডলার।
  • অর্কেস্ট্রেটের ডেভেলপমেন্ট অ্যাকাউন্টে এক্সেস। শিক্ষার্থীরা মাসিক ৪৯ ইউএস ডলার খরচ করে এ সুবিধা পেতে পারেন।
  • সেন্ডগ্রিডে ১৫,০০০ ফ্রি ই–মেইলের সুবিধা।
  • ট্যারাভিস সিআইর প্রাইভেট বিল্ডে এক্সেস। যার জন্য একজন শিক্ষার্থীর খরচ হয় মাসিক মাত্র ৬৯ ইউএস ডলার।

অ্যামাজন স্টুডেন্ট প্যাকঃ

একজন শিক্ষার্থী ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহার করে ছয় মাসের জন্য অ্যামাজন প্রাইমের ফ্রি সার্ভিস পেতে পারেন। সেই সঙ্গে থাকে বিভিন্ন পণ্যের ওপর দুই দিনের ফ্রি শিপিং এবং মুভি, টিভি শো এবং গানের আনলিমিটেড স্ট্রিমিং। এ ছাড়া অ্যামাজন প্রাইম ফোটোজের আনলিমিটেড স্টোরেজ সুবিধা।

মাইক্রোসফট ড্রিমস্পার্কঃ

মাইক্রোসফটের অসংখ্য সফটওয়্যার শিক্ষার্থীরা বিনা মূল্যেই নিতে পারেন ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহারের মাধ্যমে। এ ছাড়া মাইক্রোসফট অফিসের ৩৬৫ ফ্রি সাবস্ক্রিপশনও থাকে শিক্ষার্থীদের জন্য।

অ্যাপলঃ

শিক্ষার্থীরা ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহার করে অ্যাপল কম্পিউটারে ২০০ ইউএস ডলার পর্যন্ত ছাড় পেতে পারেন। এ ছাড়া অ্যাপল মিউজিকে যেখানে একজন গ্রাহককে মাসিক ১০ ইউএস ডলার গুনতে হয়, সেখানে একজন শিক্ষার্থী ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহার করে এই সুবিধা পেতে পারেন মাত্র ৪.৯৯ ডলারে।

ওয়েবহোস্টিং

জেডনেটলাইভ, সাইটগ্রাউন্ড, লুহোস্ট, স্কয়ারস্পেস, ইনমোশন হোস্টিং, ড্রিমহোস্টের সুবিধা শিক্ষার্থীরা পেতে পারেন একদমই বিনা খরচে শুধু ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল ব্যবহার করে।

নিউজপেপার এবং ম্যাগাজিনঃ

বিশ্বের বিভিন্ন প্রসিদ্ধ খবরের কাগজ ও ম্যাগাজিন যেগুলোতে উচ্চ সাবস্ক্রিপশন ফি দিতে হয়, সেগুলোতে শিক্ষার্থীরা অনেক কম সাবস্ক্রিপশন ফি দিয়েই সুবিধা ভোগ করতে পারেন। এর মধ্যে রয়েছে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস, দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, দ্য ইকোনমিস্টের মতো নিউজপেপারও।

এ ছাড়া আরও অনেক সুবিধাই পাওয়া যায় ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল বা .edu মেইল ব্যবহার করে। নিউএগ প্রিমিয়ার, অটোডেস্ক, ডেল, লাস্টপাসে শিক্ষার্থীদের জন্য প্রচুর ছাড় এবং ফ্রি সাবস্ক্রিপশনের ব্যবস্থা থাকে। তা ছাড়া অফিশিয়াল কাজের জন্য ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইলের ব্যবহার যেকোনো সময়ই বেশি লাভজনক। উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রেও সাধারণ ই–মেইলের চেয়ে ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইল বেশি গ্রহণযোগ্যতা পায়। শিক্ষার্থীরা এর যথাযথ ব্যবহার করে নিজের অবস্থানকে আরও জোরদার করতে পারেন। বর্তমান বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হলে শিক্ষার্থীদের ইনস্টিটিউশনাল ই–মেইলের ব্যবহারের বিকল্প নেই।

Reference: 01 02

Comments are closed.