সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং অনেকের কাছেই অজানা একটা বিষয়

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং অনেকের কাছেই অজানা একটা বিষয়

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং অনেকের কাছেই অজানা একটা বিষয়, বিশেষ করে আমাদের দেশে ।আমরা কম্পিউটার বা আইটি রিলেটেড কিছু শুনলেই সেটা কম্পিউটার সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং এর কথা ভাবতে শুরু করি । এক্ষেত্রে প্রথমে একটা জিনিস পরিষ্কার করে বলে দেই কম্পিউটার সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং হার্ডওইয়্যার এবং সফটওয়্যার দুটো জিনিস নিয়েই কাজ করে আর সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং শুধু সফটওয়্যার নিয়েই কাজ করে ।
সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং হচ্ছেঃ গবেষণা, নকশা, বিকাশ, এবং অপারেটিং সিস্টেম-ভিত্তিক সফটওয়্যার পরীক্ষা, কম্পাইলার, এবং নেটওয়ার্ক বণ্টন সফটওয়্যার, যা চিকিৎসা, শিল্প, সেনাবাহিনী, যোগাযোগ, বিমান চালনা, বাণিজ্যিক, বৈজ্ঞানিক, এবং সাধারণ কম্পিউটিং অ্যাপ্লিকেশনের জন্য ব্যবহার করা। (উইকিপিডিয়া)
.
আপনার মাথাটাকে যদি নিয়ন্ত্রণ করা যায় তবে আপনার পুরা দেহটাকেই নিয়ন্ত্রন করা যাবে । তেমনি আপনি যদি কম্পিউটারে বস হতে চান তাহলে এর অভ্যন্ত্ররীন প্রোগ্রামগুলো নিয়ন্ত্রন করুন তাহলে সব আপনার দখলে।

কি কি শেখানো হয় এখানেঃ
একটা সফটওয়্যারের শুরু থেকে শেষ মানে আধি-নক্ষত্র বলে যা থাকে সবই সেখানো হবে আপনাকে। প্রোগ্রামিং,নেটওয়ার্কিং, ডিজাইনিং, ডাটাবেজ,ডাটা-স্টাকচার, টেস্টিং, সিকিউরিটি ইত্যাদির এর সাথেও গণিত, পদার্থ, ব্যাবসা সম্পর্কেও ধারণা দেওয়া হয় এখানে।
.
কারা আসবেন এই বিভাগেঃ
আপনার যদি খুব ধৈর্য থাকে তবে এইখানে আপনাকে স্বাগতম। কারণ আপনাকে হয়ত এক প্রোগ্রাম লিখে সারা রাত কাটিয়ে দিতে হতে পারে বা একটা সফটওয়্যারের ডিজাইন আর ডাটাবেজ বানাতে বানাতে কয়েক দিনও কেটে যেতে পারে । তবে ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই যখন আপনি দেখবেন যে আপনার প্রোগ্রামটি ঠিকভাবে রান করছে বা আপনার কম্পিউটারটি আপনার দেওয়া নির্দেশনাগুলো ঠিকমত মেনে চলছে সেসময় আপনার থেকে আপনাতেই কাজের প্রতি মন এসে যাবে।এর মানে এই না যে আপনাকে প্রোগ্রামিং এই করতে হবে শুধু প্রোগ্রামিং ছাড়াও আরও অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলো আপনার উজ্জ্বল ক্যারিয়ারের জন্য যথেষ্ট ।
.
অন্যদের থেকে আলাদা কেনঃ
আপনি অন্য যেকোনো ডিপার্টমেন্টের দিকে তাকান আপনার কাজের নিয়ম বেধে দেওয়া হচ্ছে, সামাজিকতা আর পোশাকের বেড়াজালে বন্ধী করে রাখা হচ্ছে আপনাকে। কিন্তু এখানে আপনার কাজে কোনো বাধা থাকবে না। আপনাকে অফিস নামক ঘরটাতে বন্ধী করে রাখা হবে না, আপনি আপনার মন মত কাজ করে ঠিক সময়ের মাঝে জমা দিলেই হল। তাছাড়া অন্যান্য সেক্টরে যেটা হয় অনেক কিছু নিয়ে নাড়াচাড়া করা লাগে এক্ষেত্রে আপনাকে কম্পিউটার নামক ছোট যন্ত্রটাই আপনার একমাত্র নাড়াচাড়ার সঙ্গী।
.
চাকরির বাজারঃ
বর্তমানে চাকরির বাজার যে কতটা চড়া সেটা কল্পনাও করা যায় না। তবে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের ক্ষেত্রে বিষয়টা ভিন্ন আপনি যদি ভাল কাজ পারেন তাহলে সুজুগ মিলতে পারে গুগোল, ফেসবুক , মাইক্রোসফটের মত বড় বড় কোম্পানিতে। আমাদের দেশে সরকারিভাবে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য আলাদা ক্ষেত্র না থাকলেও যখন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং এর একুভেলেন্ট চায় তখন আপনারা আবেদন করতে পারবেন। তবে বিভিন্ন সফটওয়্যার ডেভেলপার কোম্পানিতে বা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে নিয়মিত কাজ করলে গড়ে মাসিক পনের হাজার থেকে দুই লাখ টাকা সম্মানী পাওয়ার সুযোগ রয়েছে।এছাড়াও নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় চুক্তিভিত্তিক কাজ বা নিজস্ব সফটওয়্যার কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করে আপনার কার্যক্ষমতা অনুযায়ী আনলিমিটেড আয়ের সুযোগ রয়েছে।

Written by : Showrov Ahamed‎, Student of DIU ,Software Engineering

Comments are closed.